করোনাভাইরাস: লক্ষণ ও চিকিৎসা কী

Korona_Vairus

Corona Virus Disease

ভাইরাসটা কী?

করোনাভাইরাস এমন একটি সংক্রামক ভাইরাস – যা এর আগে কখনো মানুষের মধ্যে ছড়ায় নি।

ভাইরাসটির আরেক নাম ২০১৯-এনসিওভি। এটি এক ধরণের করোনাভাইরাস। করোনাভাইরাসের অনেক রকম প্রজাতি আছে, কিন্তু এর মধ্যে মাত্র ছয়টি মানুষের দেহে সংক্রমিত হতে পারে। তবে নতুন ধরণের ভাইরাসের কারণে সেই সংখ্যা এখন থেকে হবে সাতটি।

সংক্রমণ ও লক্ষণ:

জ্বর দিয়ে ভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হয়, এরপরে শুকনো কাশি দেখা দিতে পারে। প্রায় এক সপ্তাহ পরে শ্বাসকষ্ট শুরু হয়ে যায়। অনেক রোগীকে হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দিতে হয়
অনেকগুলো ধারণার একটি হলো- মাছ ও মাছের বাজার থেকে এ ভাইরাস সংক্রমণের উৎপত্তি। রোগীর হাঁচি বা কাশি থেকে ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা আছে। আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শ থেকেও যে কেউ এতে আক্রান্ত হতে পারে।
চিকিৎসকরা দেখেছেন, করোনা ভাইরাস সংক্রমণের পর সাধারণ জ্বর ও শুকনো কাশি শুরু হয়। একইসঙ্গে রোগীর মাথা ব্যথা ও পেশিতে ব্যথা হতে পারে। সংক্রমণের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে রোগীর শ্বাসকষ্ট শুরুর সম্ভাবনা থাকে এবং এর জন্য তাকে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার প্রয়োজন হতে পারে।
তবে এ লক্ষণ থাকলেই যে কেউ করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হবে, তা নয়। সাধারণ ঠাণ্ডা লাগা বা ফ্লুতেও এধরনের লক্ষণ দেখা যেতে পারে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ও চিকিৎসা:

যেহেতু করোনা ভাইরাস সংক্রমণের কোনো চিকিৎসা বা প্রতিষেধক নেই, তাই সতর্কতাই এ ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষা পাওয়ার একমাত্র উপায়|

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচতে চিকিৎসকরা পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার বিষয়ে পরামর্শ দিচ্ছেন। এছাড়া সতর্কতার জন্য মাস্ক ব্যবহারেরও পরামর্শ দিচ্ছেন তারা। হাঁচি-কাশিতে টিস্যু বা কাপড় ব্যবহার অথবা এর অবর্তমানে পোশাকের অংশবিশেষ ব্যবহারের পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

যেহেতু রোগীর সংস্পর্শ ও সংসর্গ থেকে ভাইরাস সংক্রমণ হতে পারে, তাই বিভিন্ন দেশে অভিবাদনের জন্য সাধারণ হাত মেলানো, চুমু খাওয়া ও কোলাকুলি থেকে দূরে থাকার আহ্বান জানাচ্ছেন চিকিৎসকরা। এর বদলে হাত নাড়ানো, চোখে চোখ রাখা বা কাঁধ চাপড়ানোর জন্য বলা হচ্ছে। পাশাপাশি ভিড় বা গণজমায়েত এড়িয়ে চলারও পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

কেউ যদি মনে করেন তিনি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত, তখন নিজের ঘর থেকে বের না হয়ে স্বাস্থ্য বিভাগের সঙ্গে দ্রুত যোগাযোগের জন্য পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here