ত্বক উজ্জ্বল হয় যেসব খাবারে

0
210
Best Fruits

ব্যস্ত সময়। খাওয়ার ঠিক নেই, ঘুমানোর ঠিক নেই। এর মধ্যে তো ত্বকের যত্ন প্রায় অসম্ভব। কোনো অনুষ্ঠান থাকলে ইনস্ট্যান্ট একটু মেকআপ নেওয়া মেয়েদের সংখ্যাই বেশি। পাঁচ মিনিটে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ানো গেলে, দিনের পর দিন, ঘণ্টার পর ঘণ্টা সময় ব্যয় করবে কে। আবার যাঁরা ত্বক নিয়ে একটু সচেতন, তাঁরা সাপ্তাহিক রূপচর্চায় বিশ্বাসী। কিন্তু নিয়মিত ত্বকের যত্ন নিলে যে ফল পাবেন, তা কখনোই ইনস্ট্যান্ট প্যাকে আসবে না। যেহেতু আমাদের হাতে সময় কম, তাই আজ আমরা এমন কিছু খবার সম্পর্কে জানব, যা খেলে বা প্যাক হিসেবে ব্যবহার করলে চটজলদি ফল পাওয়া যাবে।

গ্রিন টির জুড়ি মেলা ভার

গ্রিন টি এখন শুধু পানীয় নয়, এটি ব্যবহার হচ্ছে রূপচর্চার সামগ্রী হিসেবে। ক্যামেলিয়া সাইনেনসিস নামের গাছ থেকে পাওয়া গ্রিন টি-তে আছে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, নানাবিধ এনজাইম, অ্যামিনো অ্যাসিড, ভিটামিন বি, ফোলেট, ম্যাঙ্গানিজ, পটাশিয়াম, ক্যাফেন ও নানা ফাইটোকেমিক্যাল, যা ত্বকের জন্য বেশ উপযোগী। ত্বককে স্বাস্থ্যবান ও উজ্জ্বল করতে গ্রিন টি দারুণ কাজ করে। শরীরে জমে থাকা টক্সিন বের করে ত্বক ভেতর থেকে করে উজ্জ্বল। এ ছাড়া ত্বকের দাগ–ছোপ, কাটা দাগ, লালচে ভাব কমাতে সাহায্য করে। ত্বকের ঔজ্জ্বল্য বাড়াতে দুটি গ্রিন টি ব্যাগ কেটে তার সঙ্গে দুই চামচ মধু ও সামান্য লেবুর রস মিশিয়ে মুখে, গলায় ও ঘাড়ে লাগিয়ে রাখুন। ১০ মিনিট পর হালকা গরম পানিতে ধুয়ে নিন। এ ছাড়া চোখের তলায় কালি বা ফোলা ভাব দূর করে গ্রিন টি-তে থাকা ট্যানিন ও অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট। গ্রিন টি-তে থাকা ভিটামিন কে এ ক্ষেত্রে সাহায্য করে। দুটি গ্রিন টি ব্যাগ আধঘণ্টার জন্য ফ্রিজে রেখে দিন। চোখ বন্ধ করে টি ব্যাগ দুটি চোখের ওপর রেখে দিন ১৫ মিনিট।

টমেটো

টমেটোতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম ও ভিটামিন সি, যা উজ্জ্বল ত্বক পেতে সাহায্য করে। টমেটোতে লাইসোপিন নামের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অ্যান্টি–অক্সিডেন্ট থাকে, যা ত্বকের বিভিন্ন দাগ, বলিরেখা ও শুষ্কভাব দূর করে ত্বক মসৃণ করে। এটি সানস্ক্রিন হিসেবে কাজ করে। ত্বকের কোষের ক্ষতির বিরুদ্ধে লড়াই করে। ত্বকের লালচে ভাব কাটাতে সাহায্য করে। আবার এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, যেসব মানুষ প্রতিদিন পাঁচ টেবিল চামচের সমপরিমাণ টমেটোর পেস্ট খেয়ে থাকেন, তাঁরা অন্যদের থেকে ৩৩ শতাংশ কম পোড়েন রোদে।

গাজর
গাজরে থাকে ভিটামিন এ, যা ত্বক টানটান রাখতে সাহায্য করে। ফলে ত্বক মসৃণ থাকে। সপ্তাহে একবার গাজর কুচি করে কেটে রস বের করে নিন। এতে অল্প মধু ও সামান্য টক দই মিশিয়ে মুখে লাগাতে পারেন। ২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। এই ফেসপ্যাক একবার ব্যবহার করলেই দেখবেন, ত্বক উজ্জ্বল দেখাচ্ছে। আবার ১ টেবিল চামচ দই, বেসন ও কয়েক ফোঁটা লেবুর রসের সঙ্গে গাজরের পেস্ট মিশিয়ে তা মুখে মেখে ১ ঘণ্টা পর উষ্ণ পানিতে ধুয়ে ফেলুন। এটি তৈলাক্ত ত্বকের জন্য খুব উপকারী।

অলিভ ওয়েল

নিজে নিজে একটি পরীক্ষা করতে পারেন। প্রতিদিন ঘুমাতে যাওয়ার ঠিক ১৫ মিনিট আগে আঙুলের মাথায় সামান্য পরিমাণ অলিভ অয়েল নিয়ে চোখের চারপাশে ম্যাসাজ করুন রোজ। ১৫ মিনিট পর ভেজা তুলা দিয়ে মুছে নিন। দেখাবেন ডার্ক সার্কল সমস্যার সমাধান কত দ্রুত হয়ে যায়। এ ছাড়া মুখ ধোওয়ার পর সামান্য অলিভ অয়েল মুখে-গলায় লাগিয়ে নিলে ত্বক কোমল ও মসৃণ হবে। স্নানের পর ভিজে ত্বকে অলিভ অয়েল লাগালে ত্বক সহজেই তেল শুষে নেবে এবং পুষ্টি পাবে।

ডার্ক চকলেট
ত্বকের যত্নের জন্য ডার্ক চকলেট? এটা কী করে সম্ভব? কিন্তু বিশ্বাস করুন চকলেট শুধু সুস্বাদু খাবারের নাম নয়, এটি ত্বকের যত্নে বেশ কার্যকর। চকলেটের অ্যান্টি–অক্সিডেন্ট ও পুষ্টি উপাদান ত্বক সুস্থ ও উজ্জ্বল রাখে। সে জন্য খেতে পারেন ডার্ক চকলেট। তবে ৭০ শতাংশের কম ক্যাকো আছে, এমন চকলেট না খাওয়াই ভালো। কারণ, যে চকলেটে ক্যাকো বেশি, তাতে চিনি কম থাকে। আর চিনি আমাদের ত্বকের জন্য ভয়ংকর ক্ষতিকর। যদি আপনি এত দিন ডার্ক চকলেট না খেয়ে থাকেন, তবে ত্বক কোমল ও নমনীয় রাখার জন্য এর সাহায্য নিতেই পারেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here